জমজমাট প্রতিবেদক: বিশ্বজুড়ে সকলের স্বস্তি কেড়ে নিয়েছে নোভেল করোনা ভাইরাস। ঈদ মানেই আনন্দ ভাগাভাগি করা। তবে এবার অদৃশ্য করোনা ভাইরাস পাল্টে দিয়েছে জনজীবন থেকে শুরু করে বিনোদনের সকল স্তর। প্রতিবছর ঈদ মৌসুমে নাটকের কাজে ঘুম হারাম হয়ে যায় শিল্পীদের। কাজের প্রেসারে চাঁদ রাত পর্যন্তও চলে শুটিং। তবে এবার আর সেই চিরচেনা ব্যস্ততা শুধুই অতীত। করোনার প্রভাব পড়েছে ঈদ নাটকে। তারকারা ঘরে বসে সময় কাটাচ্ছেন অলস ভঙ্গিতে।

দেশের এই সংকট সময়েও থেমে নেই প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান ক্রাউন এন্টারটেইনমেন্ট। ঈদের জন্য নির্মাণ করেছেন বেশ কিছু নাটক। তার মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো- বৈশাখী টিভিতে আদিবাসী মিজান’র পরিচালনায় ‘বৃটিশ বুদ্ধি’, দীপ্ত টিভিতে ‘ভেরিফিকেশন’, ‘তিন দৈত্য’, ‘আছোড়’, ‘নো চিন্তা ডু ফুর্তি’, আরটিভিতে ‘ফরমাইশ ম্যান’, ‘কদম আলীর পাহারাদার’, বাংলাভিশনে সাত পর্বের বিশেষ ধারাবাহিক ‘চড়া তালুকদার’ও এনটিভিতে ‘মেষরাশি’। চ্যানেল আইতে হিমু আকরামের ‘বেদানা বিবির বিন্নি’, দীপ্ত টিভিতে গোলাম সোহরাব দোদুলের সাত পর্বের ধারাবাহিক ‘বনে ভোজন’, শোয়েব চৌধুরীর গল্পে আবু হায়াত মাহমুদের ঈদ ফিকশন ‘হ্যাকড্ লাভস্টোরি’, সজীব মাহমুদের ‘কাচ্চি মুন্না’, নাজমুল রনির ‘লেইস ফিতা লেইস’, আজাদ কালামের ‘ছায়া কাব্য’, ‘মঈশাল-২’, আরটিভিতে ‘খোকা বাবু’।

নাটকগুলোতে অভিনয় করেছেন সালাউদ্দিন লাভলু, জাহিদ হাসান, বড়দা মিঠু, ফারুক আহমেদ, আনিসুর রহমান মিলন, রওনক হাসান, তারিন জাহান, নাদিয়া আহমেদ, জামিল হোসাইন, নাদিয়া আফরিন মিম, ঊর্মিলা শ্রাবন্তী কর, নাবিলা ইসলাম, নিলা ইসলাম, আরফান আহমেদ, সাজু খাদেম, মারজুক রাসেল, টয়া, মুনিরা মিঠু, তারেক স্বপন, সোহেল খান, মোনালিসা দীপা, ইকবাল হোসেন, চাষী আলম, রাজু আহসান, শ্যামল মাওলা, তানিয়া বৃষ্টি, মিশু সাব্বির, সূচনা শিকদার, তারিন, শাহেদ আলী, জান্নাতুল প্রিয়া, শামীমা নাজনীন, মিলন ভট্টাচার্য, শরীফুল ইসলাম, ফারজানা রিক্তা, রিমু রোজা খন্দকার, এমিলা হক, হিমি হাফিজ, জাহিদ আকন্দ প্রমূখ।

Previous articleদশ বছর পর একসাথে তাঁরা
Next articleঅ্যালেন-ইভানার ‘গায়ে হলুদ’

Leave a Reply